WIKI KOLKATA

হেরিটেজ ডবল ডেকার বাস রাইড

1.26K পর্যটন 2 years ago

সুবীর নিয়োগী: প্রথম দিন এক মিনিটের জন্য মিস হওয়ার পর দ্বিতীয় দিন কোনো মতেই মিস করা যাবেনা এই প্ল্যান নিয়ে সময় মতো পৌঁছে প্রথম প্যাসেঞ্জার হিসাবে দোতলার বেস্ট দুটো সিট গ্র্যাব করলাম, আর মাত্র ২ মিনিটেই শুরু হবে কলকাতার এক চক্কর লাগানো।। দুপুর ২:৫০ এ বাসের চাকা গড়াতেই কেমন যেনো আশ্চর্যের সঙ্গে আমার প্রিয় শহর টা অনেকটা উপর থেকে খোলা আকাশের তলায় বসে দেখতে লাগলাম।।। চারপাশের লোকজনও হা করে তাকিয়ে আছে আমাদের হাতে গোনা ৬ জন যাত্রীর দিকে বাসের চাকা একে একে গড়িয়ে এগোবে প্রিন্সেপ ঘাট হয়ে ইডেনের গেটের পাস দিয়ে সেন্ট জনস চার্চ, জিপিও, হাইকোর্ট, রাজ ভবন, ডেকার্স লেন, সেন্ট্রাল এভিনিউ হয়ে সোজা জোড়াসাঁকো ঠাকুরবাড়ি আবার ব্যাক করে ধর্মতলা রেড রোড, পার্ক স্ট্রিট, বিড়লা মিউজিয়াম, ক্যাথিড্রাল চার্চ হয়ে সোজা রবীন্দ্র সদন। একে একে সব জায়গা যত এগোতে লাগলো, তত যেনো উল্লসিত হতে থাকলাম, কোনোদিন তো শহর টাকে এমনভাবে দেখার সুযোগ হয়নি তাই বোধহয়, নিচ দিয়ে ঘুরলেও কখনো বড়ো বড়ো উঁচু বিল্ডিং গুলোর দিকে সেভাবে তাকাইনি বা বলা চলে তারাও আমাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেনি একমাত্র “দি ৪২” বাদে, তাই আজ যেনো বড্ড কাছ থেকে তাদের হাতের নাগালে পেয়ে আনন্দিত হলাম খুব, এক অন্যরকম অনুভূতি নিয়ে শহর টা কে অনেকটা কাছ থেকে দেখলাম, দের ঘণ্টার রাইডে উপরি পাওনা বাচ্চা থেকে বুড়ো, কর্মরত পুলিশ, বাস অটো গাড়ি থেকে সবার হাতনাড়া দিয়ে আমাদের হ্যাপি জার্নির উইশ করা দেড় ঘণ্টা কিভাবে কাটলো সেটা আর জানতে পারিনি, তবে হুড খোলা বাসের মাথায় চড়তে এতদিন শুধু ট্রফি জেতার পর কোনো টিম কেই ঘুরতে দেখেছি, এবার নিজেদের সেই স্থানে রেখে মন্দ লাগেনি একটুও, দুপুরের কড়া রোদও তাই দমিয়ে রাখিনি আমাদের মত কিছু হুজুগে যাত্রীদের, খোলা নীল সাদা আকাশের তলায় শীতল বায়ুর সংস্পর্শে(হ্যাঁ ঠিক পড়ছেন, শীতল বায়ু) বেশ আরামদায়ক জার্নি হয়েছে।। অন্তত আমাদের তাই মনে হয়েছে।
তাই বিলম্বিত না করে আপনারাও বেরিয়ে পড়ুন হেরিটেজ বাস রাইড করতে, কিছু ভালো না লাগলেও, খানিকটা ভিআইপি মনে হবে নিজেদের এটুকু হলপ করে বলতে পারি

ছবি: সুবীর নিয়োগী


***এবার কিছু তথ্য ***
✓ দিনে দুবার বাস টি ছাড়ে ঠিক রবীন্দ্র সদন গেটের উল্টো দিক থেকেই। ভাড়া জনপ্রতি ৫০ টাকা। রবীন্দ্র সদন থেকে রবীন্দ্র সদন।। বেলা ১২ টা আর দুপুর ২:৪৫।
✓ ফার্স্ট কাম ফার্স্ট সার্ভিস তাই আগে গেলে উপরের সিটে বসার চান্স থাকবে।
✓ উপরে মাত্র ১২ টি সিট এবং নিচে ১৪ টি।। দোতলায় বসে থাকা আবশ্যিক, দাঁড়ানো যাবেনা কোনো ভাবেই।
✓রোদ বা বৃষ্টি থেকে বাঁচার জন্য উপরে বড়ো বড়ো ছাতা রাখা থাকে, ব্যবহার করার জন্য।
✓ সিকিউরিটিদের আদেশ বা উপদেশ মেনে চলবেন।
✓ টিকিট সংগ্রহ করে রেখে দেবেন কাছে, যতক্ষণ না নামবেন, নামার সময় দেখাতে হবে।
✓ কারুর ইচ্ছা হলে যেকোনো জায়গায় নেমে পড়তে পারেন, কিন্তু টিকিটের ফিক্সড রেট ৫০ টাকাই।
✓ পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখুন এবং আনন্দের সাথে ঘুরুন।

লিখেছেন : সুবীর নিয়োগী

ছবি: সুবীর নিয়োগী

Latest Update